১৯৫৩ সালের ০৬ জুলাই দেশের দ্বিতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠা হয়। আজ ০৬ জুলাই, ২০২২ রোজ বুধবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী। সে উপলক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৯ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন কমিটির উদ্যাগে এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাবের সহযোগিতায় স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য আয়োজন করা হয়েছে “গবেষণাগার পরিদর্শন” অনুষ্ঠান।

এই ধরনের অনুষ্ঠান আমাদের দেশে প্রথম। স্কুলের নবম শ্রেণীতে যখন বিভাগ পছন্দ করতে হয়, যারা বিজ্ঞান বিভাগ নেয় তাদের কাছে ‘ব্যবহারিক’ শব্দটা খুবই পরিচিত। এর মধ্যে অনেকেই হয়তো পরিচিত হয়ে যায় গবেষণাগারের সাথে। প্রাকটিকাল সবার জন্য বাধ্যতামূলক হলেও গবেষণাগারে কাজ করাটা সবার ভাগ্যে থাকে না। এমনকি বাংলাদেশের অধিকাংশ শিক্ষার্থীর গবেষনাগার সম্পর্কে পর্যাপ্ত ধারণাও নাই।

স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের গবেষণাগার সম্পর্কে জানাতে। এবং গবেষণাগারের কিছু পরীক্ষা নীরিক্ষা সরাসরি দেখাতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬৯ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭ টি গবেষণাগার স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা হয়।

গবেষনাগার গুলো হচ্ছে,

ক. কম্পিউটার প্রোগ্রামিং গবেষণাগার

খ. থ্রিডি প্রিন্টিং গবেষণাগার

গ. মলিকুলার বায়োলজি এবং প্রোটিন সায়েন্স গবেষণাগার

ঘ. পদার্থবিজ্ঞান গবেষণাগার

ঙ. সিনথেটিক কেমিস্ট্রি, ন্যাচারাল প্রোডাক্ট এবং ন্যানো টেকনোলজি গবেষণাগার

চ. জিওলজিকাল মিউজিয়াম এবং

ছ. প্রফেসর মুস্তাফিজুর রহমান মেমোরিয়াল মিউজিয়াম

আজ সকাল ১১.০০ ঘটিকায়, “প্রফেসর মুস্তাফিজুর রহমান মেমোরিয়াল মিউজিয়াম” এ ভিসি মহোদয় জনাব প্রফেসর গোলাম সাব্বির সাত্তার(উপাচার্য-রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়) এই অনুষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন ।

এ সময় উপাচার্যের সঙ্গে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া, উপ উপাচার্য অধ্যাপক সুলতান-উল ইসলাম, কোষাধ্যাক্ষ অবায়দুর রহমান প্রামানিক, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম, জনসংযোগ প্রশাসক অধ্যাপক প্রদীপ কুমার পান্ডে, অধ্যাপক ডঃ মোঃ মাহবুব হাসান(সভাপতি, প্রাণীবিজ্ঞান বিভাগ), অধ্যাপক ডঃ মোঃ নজরুল ইসলাম, প্রাণীবিজ্ঞান বিভাগের অন্যান্য শিক্ষকগন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাবের উপদেষ্টা অধ্যাপক তারিকুল হাসান রাবি সায়ন্স ক্লাবের সদস্য এবং বিভিন্ন স্কুল ও কলেজের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। এর আগে RUSC Summer Science Olympiad 2022 এর সমাপ্তি অনুষ্ঠানে সায়েন্স ক্লাবের সভাপতি আবিদ হাসান গবেষণাগার পরিদর্শনের বিষয়টি ঘোষণা করেন।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাবের সভাপতি আবিদ হাসান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, অধ্যাপক তারিকুল ইসলাম ( রসায়ন বিভাগ এবং উপদেষ্টা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাব)। তিনি বলেন, “চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ভবিষ্যৎ বিজ্ঞান মনস্ক দক্ষ জনবল গড়তে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদেরকে আধুনিক যুগোপযোগী বিজ্ঞান চর্চার বিজ্ঞান শিক্ষায় আগ্রহী করতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনকে আমি সাধুবাদ জানাই এবং এই উদ্যোগকে ভবিষ্যতে আরো বড় আকারে আয়োজনের জন্য আহ্বান করছি”।

ভিসি মহোদয় তার বক্তব্য বলেন, “বিশ্বের উন্নত দেশগুলোতে স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের গবেষনাগার পরিদর্শন করানো হয়। আমাদের দেশে এই প্রথম আমরা এই ধরনের আয়োজন করেছি, যেন শিক্ষার্থীরা বিজ্ঞানে বেশি আগ্রহী হয়। আমরা এই ধরনের কার্যক্রম প্রতি বছর ধরে রাখবো । রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাবকে ধন্যবাদ জানাই, এই ধরনের আয়োজনের জন্য “। উদ্বোধন শেষে, স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের চারটা গ্রুপ করে সকল গবেষণাগার পরিদর্শন করানো হয়। এসময় স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবীন ও প্রবীণ বিজ্ঞানীদের কাজ সরাসরি দেখার সুযোগ পান এবং তাদের সাথে পরিচিত হন।